এটাই কারন !

SOAP পাষ্টর লিওনের পক্ষ থেকে

বাইবেল পদ, পযার্লোচনা, আবেদন, প্রাথর্না

০৩.০৩.১৩; গণনা পুস্ত্ক ৩০-৩১; মার্ক্ ৯

 

বাইবেল পদ: গণনা পুস্তক ৩১: ৪৮-৪৯এর পর সৈন্যদের বিভিন্ন দলের সেনাপতিরা, অর্থাৎ হাজারপতি ও শতপতিরা মোশির কাছে গিয়ে বললেন, “আপনার দাসেরা, অর্থাৎ আমরা আমাদের অধীন সৈন্যদের গুনে দেখলাম তাদের মধ্যে কেউই মারা পড়ে নি। ৫০তাই আমরা প্রত্যেকে যে সমস্ত সোনার বাজু, বালা, সীলমোহর করবার আংটি, কানের দুল ও গলার হার পেয়েছি, আমাদের পাপ ঢাকা দেবার উদ্দেশ্যে আমরা সেগুলো সদাপ্রভুর কাছে উৎসর্গ্ করতে নিয়ে এসেছি।”

 

পযার্লোচনা: বার হাজার সৈন্যকে যুদ্ধে পাঠানো হয়েছিল এবং বার হাজারই ফিরে এসেছিল !  কোন পিতামাতা একটি পুত্রকেও হারায়নি; কোন স্ত্রী একজন স্বামীকেও হারায়নি; কোন সন্তান একজন পিতাকেও হারায়নি ! যখন যুদ্ধের লুটের মাল ভাগ করা হচ্ছিল, তখন যারা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে তারা প্রভুর  কাছে তাদের উপলব্ধি প্রকাশ করতে চেয়েছিল। তারা প্রভুর কাছে দান করতে চেয়েছিল। এই পদগুলো আমাকে একটি সাক্ষ্য মনে করিয়ে দেয় যেটা আমি অনেক দিন আগে শুনেছিলাম। একজন মা ও বাবা চার্চের একটি অধিবেশনে ছিলেন যেখানে একটি ছেলে যে ভিয়েত নামে মারা গিয়েছিল তার স্মৃতিতে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করতে দান করা হচ্ছিল। লোকটি তার স্ত্রীর কাছে ফিরে আসল ও শান্তভাবে বলল, “আমাদের পুত্রের জন্যও একটি উপহার দান কর !” সে উত্তর করল, “কিন্তু আমাদের পুত্র তো ফিরে এসেছে, তাকে ভিয়েত নামে মারা হয়নি।” সে বলল, “এটাই কারন !”

 

আবেদন: কেন আমি প্রভুকে দান করি এবং যেটা আমি আমার চারপাশে দেখি সেটা চাই ? এটাই কারন ! এবং, এটাই কারন ! এবং সেখানে আছে কেন এর অন্য কারন ! আমার আছে অনেক কারন আমার উপলব্ধি প্রদর্শ্.ন করার।

 

প্রাথর্না: প্রভু, আমার অফুরন্ত উপলব্ধি অবশ্যই অফুরন্ত দান করার মধ্য দিয়ে প্রকাশিত হবে ! আমাকে দেখাও কি, কখন ও কোথায় দান করতে হবে। এবং তোমার আমাকে কখনও দুবার বলতে হবে না ! আমেন।

 

পাষ্টর লিওন

বন্ধুদের প্রস্তুত করতে সময় এবং অনন্তকালের জন্য !

 

2.Muslim version

এটাই কারন !

SOAP পাষ্টর লিওনের পক্ষ থেকে

কিতাবুল মোকাদ্দস , পযার্লোচনা, আবেদন, মুনাজাত

০৩.০৩.১৩; শুমারী ৩০-৩১; মার্ক্ ৯

 

কিতাবুল মোকাদ্দস: শুমারী ৩১: ৪৮-৪৯এর পর সৈন্যদের বিভিন্ন দলের সেনাপতিরা, অর্থাৎ হাজারপতি ও শতপতিরা মুসার কাছে গিয়ে বললেন, “আপনার গোলামেরা, অর্থাৎ আমরা আমাদের অধীন সৈন্যদের গুনে দেখলাম তাদের মধ্যে কেউই মারা পড়ে নি। ৫০তাই আমরা প্রত্যেকে যে সমস্ত সোনার বাজু, বালা, সীলমোহর করবার আংটি, কানের দুল ও গলার হার পেয়েছি, আমাদের গুনাহ্ ঢাকা দেবার উদ্দেশ্যে আমরা সেগুলো মাবুদের কাছে কোরবানী করতে নিয়ে এসেছি।”

 

পযার্লোচনা: বার হাজার সৈন্যকে যুদ্ধে পাঠানো হয়েছিল এবং বার হাজারই ফিরে এসেছিল !  কোন পিতামাতা একটি পুত্রকেও হারায়নি; কোন স্ত্রী একজন স্বামীকেও হারায়নি; কোন সন্তান একজন পিতাকেও হারায়নি ! যখন যুদ্ধের লুটের মাল ভাগ করা হচ্ছিল, তখন যারা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে তারা মাবুদের  কাছে তাদের উপলব্ধি প্রকাশ করতে চেয়েছিল। তারা মাবুদের কাছে দান করতে চেয়েছিল। এই আয়াতগুলো আমাকে একটি সাক্ষ্য মনে করিয়ে দেয় যেটা আমি অনেক দিন আগে শুনেছিলাম। একজন মা ও বাবা চার্চের একটি অধিবেশনে ছিলেন যেখানে একটি ছেলে যে ভিয়েত নামে মারা গিয়েছিল তার স্মৃতিতে একটি স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করতে দান করা হচ্ছিল। লোকটি তার স্ত্রীর কাছে ফিরে আসল ও শান্তভাবে বলল, “আমাদের পুত্রের জন্যও একটি উপহার দান কর !” সে উত্তর করল, “কিন্তু আমাদের পুত্র তো ফিরে এসেছে, তাকে ভিয়েত নামে মারা হয়নি।” সে বলল, “এটাই কারন !”

 

আবেদন: কেন আমি মাবুদকে দান করি এবং যেটা আমি আমার চারপাশে দেখি সেটা চাই ? এটাই কারন ! এবং, এটাই কারন ! এবং সেখানে আছে কেন এর অন্য কারন ! আমার আছে অনেক কারন আমার উপলব্ধি প্রদর্শ্.ন করার।

 

মুনাজাত: মাবুদ, আমার অফুরন্ত উপলব্ধি অবশ্যই অফুরন্ত দান করার মধ্য দিয়ে প্রকাশিত হবে ! আমাকে দেখাও কি, কখন ও কোথায় দান করতে হবে। এবং তোমার আমাকে কখনও দুবার বলতে হবে না ! আমেন।

 

পাষ্টর লিওন

বন্ধুদের প্রস্তুত করতে সময় এবং অনন্তকালের জন্য !

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s